1. [email protected] : Faisal Ahmed : Faisal Ahmed
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
ধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে ক্ষতবিক্ষত ! বেরিয়ে এল কিডনি-লিভার!
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৮ অপরাহ্ন

  • আপডেটের সময় : সেপ্টেম্বর, ১৩, ২০২১, ৩:২০ অপরাহ্ণ
যৌনাঙ্গ বাঁশ ঢুকিয়ে ফালা ফালা করল জামাই! বেরিয়ে এল কিডনি-লিভার!
ছবি-প্রতিনিধি

ধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে ক্ষতবিক্ষত ! বেরিয়ে এল কিডনি-লিভার!

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: মুম্বইয়ের ভিলে পার্লেতে শাশুড়ির ওপরে জামাইয়ের অত্যাচারের ঘটনায় যে কেউ শিউরে উঠতে বাধ্য। উত্তরপ্রদেশের বিজনোরে ধর্ষণের পরে যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে পাশবিক অত্যাচারের ক্ষতে প্রলেপ পড়ার আগেই ফের নৃশংস হত্যালীলা ।

অভিযুক্ত জামাই শারীরিক নির্যাতনের পরে যৌনাঙ্গ ফালা ফালা করে শরীরের একাধিক প্রত্যক্ষ টেনে বাইরে বার করে নিয়ে আসে পাশবিক নির্যাতনে মৃত্যু হয় শাশুড়ির। ঘটনার একদিন পরে পুনে থেকে গ্রেফতার হয় অভিযুক্ত জামাই। তার বিরুদ্ধে খুন, নির্যাতনের একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়। পরে অতিরিক্ত ৩৭৭ ধারা যোগ করা হয়েছে। আদালতে পেশ করা হলে তাকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতা ওই মহিলা মেয়েকে নিয়ে ভিলে পার্লেতে থাকতেন। বেশ কয়েকবছর আগে অভিযুক্তের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে হয়। বছর তিনেক আগে একটি সোনার হার ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে অভিযুক্ত। তাতেই তিন বছর আগে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারপর থেকে জেলেই ছিল। গত ১ সেপ্টেম্বর জেল থেকে ছাড়া পায় সে। তারপর স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিল। পুলিশি জেরার মুখে অভিযুক্ত জানায়, বউয়ের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে সে জানতে পারে অন্য কারও সঙ্গে স্ত্রী সংসার পেতেছে। এমনকি সে গর্ভবতী। এরপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে সে। স্ত্রীকে নিজের সঙ্গে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু স্ত্রী রাজি হননি। এরপর হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরে যায়।

পুলিশি জেরার মুখে অভিযুক্ত আরও জানিয়েছে, পরের দিন সকালে সে আবার স্ত্রীর কাছে যায় তাঁকে নিজের কাছে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য। কিন্তু তখন গিয়ে আর বউকে বাড়িতে দেখতে পায়নি। বাড়িতে সেই সময় একাই ছিলেন শাশুড়ি। পুলিশকে সে জানিয়েছে, স্ত্রীকে না পেয়ে, সে কোথায় গিয়েছে জানার জন্য শাশুড়িকে চাপ দিতে থাকে। কিন্তু তাতে কোনও ফল হয়নি। শেষমেষ রাগের বশে তাঁকে আছড়ে মাটিতে ফেলে। তারপর টাইলসের টুকরো এবং ছুরি দিয়ে এলোপাথারি কোপাতে থাকে।

এরপর সামনে পড়ে থাকা বাঁশ যৌনাঙ্গে ঢুকিয়ে ফালাকালা করে দেয়, টেনে বাইরে বার করে নিয়ে আসে শরীরের একাধিক প্রত্যঙ্গ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই মহিলার। এরপর এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। যদিও কোনও লাভ হয়নি পালিয়ে। মাত্র ২৪ ঘপণ্টার মধ্যেই পুনে থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে।

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /১২ সেপ্টেম্বর ২০২১/ এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ