1. [email protected] : Faisal Ahmed : Faisal Ahmed
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৪:১৬ পূর্বাহ্ন

  • আপডেটের সময় : এপ্রিল, ৩০, ২০২১, ২:২৩ অপরাহ্ণ
রাতের আধারে
রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবক নাঈম আহমেদ তালুকদার। - ছবি : সিলেটপ্রেস

রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শাহরিয়ার খাঁন সাকিব, স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে :: মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য এই প্রতিপাদ্যে ব্রত হয়ে তাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক নাঈম আহমেদ তালুকদার।

রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কার্যত লকডাউন ছিল সারা দেশে। চলছিল সাধারণ ছুটিও। ফলে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন সমাজের অসহায় – হতদরিদ্র খেটে খাওয়া মানুষগুলো।

রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ

তবে একেকজনের সহায়তা করার ধরণ একেক রকম। কেউ দিচ্ছেন প্রকাশ্যে; আবার কেউ গোপনে। এরই ধারাবাহিকতায় নিজ উদ্যোগে রাতের আঁধারে নিরবে দান করছেন অসহায় -দরিদ্র, কর্মহীন ও মধ্যবিত্ত – নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষদের। তিনি নিজে তাদের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন।

রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ

বেশ কয়েকটি পরিবারের মধ্যে চাল, ডাল, তেল, পেয়াজ, খেজুরসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছেন তিনি।

স্বেচ্ছাসেবী নাঈম আহমেদ তালুকদার সিলেটপ্রেসডটকমকে বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে কর্মজীবী মানুষ কাজ করতে পারছেন না। আমাদের সমাজে অসহায় হয়ে পড়েছেন মধ্যবিত্ত – নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ। তারা লোক লজ্জায় ভয়ে কারো কাছে সহযোগিতা চাইতে পারছেন না। তাই নিজ উদ্যোগে যতটুকু সম্ভব তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। তিনি আরো বলেন, যারা আমার এই মহতি উদ্যোগে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

 

দিনেরবেলা খাদ্যসামগ্রী দিতে গেলে অনেকের যাতে সম্মান ক্ষুন্ন না হয় তাই রাতের বেলা সিএনজি নিয়ে রাত ১১টা বা ২ টার সময় ও নীরবে বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করছি।

রাতের আঁধারে অসহায়দের ঘরে খাদ্যসামগ্রি পৌঁছে দিচ্ছেন নাঈম আহমেদ

নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক – মেসেঞ্জারে চলে অর্থ সংগ্রহের কাজ। বিকাশে টাকা পাঠানোর মাধ্যমগুলোর পাশাপাশি সরাসরি হাতে হাতে সংগ্রহ করা হয় টাকা।

অসহায় মানুষের জন্য কিছু করার এমন প্রস্তাব দিয়ে একদিন রাতে ফেসবুক লাইভে আসেন তিনি তার এমন মহতি কাজে দেশে-বিদেশে অবস্থানরত মানবতাপ্রেমি অনেকে সাড়া দেন। এখান থেকে শুরু।

প্রস্তাবটি শোনার পর এটি বাস্তবায়নের জন্য অর্থ-শ্রম-বুদ্ধি-পরামর্শ দিয়ে অনেকে দেশ-বিদেশে থেকে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন অনেকেই।

দরিদ্রদের ছবি না তোলা ও নাম গোপন রাখা হচ্ছে। যাদের খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হচ্ছে তাদের কোনো ছবি তোলা বা নাম প্রকাশ করছেন না।

কঠোরভাবে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা হচ্ছে বলে জানান তিনি। তাই আয়-ব্যয়ের স্বচ্ছতা নিশ্চিতের জন্য ত্রাণ গ্রহণকারীদের একটা তালিকা সংরক্ষণ করছি। তবে এটি কখনোই প্রকাশ করা হবে না। শুধুমাত্র স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে বা কেউ কোনো অনিয়মের প্রশ্ন তুললে তা প্রমাণের জন্য এটি সংরক্ষণ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে কে কত টাকা বা অনুদান হিসেবে কি দান করছেন এবং কত টাকা কিভাবে ব্যয় হচ্ছে খুব স্বচ্ছতার সঙ্গে হিসেব রাখা হচ্ছে।

 

খাদ্যসামগ্রী গ্রহিতাদের একজন বলেন, চুপিচুপি আমাদের ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। আমাদের সম্মানের কথা চিন্তা করেছে এটা অনেক ভাল লেগেছে।

এভাবে সবাই এগিয়ে এলে মানুষের কষ্ট কমে যাবে বলে মনে করেন তিনি।

 

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম/ ৩০ এপ্রিল ২০২১/ এসকেএস


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ