1. [email protected] : Faisal Ahmed : Faisal Ahmed
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
মা বোন কে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে আবাদ
মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৪:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ছাতকে লাফার্জ হোলসিম সিমেন্ট কোম্পানী খোলা বাজারে চুনা পাথর বিক্রি করার প্রতিবাদে মানববন্ধন না ফেরার দেশে চিত্রনায়ক শাহীন আলম কানাইঘাটে বিধবা জননীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন সিলেটে ট্রাকচাপায় শিশুর মৃত্যু বাহুবলের পল্লীতে ব্যাপক শিলাবৃষ্টি গাছপালা,বাড়ি ঘর লন্ডভন্ড বিশ্বনাথে অধ্যক্ষের পদত্যাগ দাবি এলাকাবাসীর অবস্থান কর্মসূচি চৌদ্দগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের বন্যাশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন এমপি মিসবাহ্ ছাতকে আর্ন্তজাতিক নারী দিবস পালিত বিশ্বনাথে আর্ন্তজাতিক নারী দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের উদ্বোধন

  • আপডেটের সময় : ফেব্রুয়ারি, ১৯, ২০২১, ৫:২৪ অপরাহ্ণ
মা বোন কে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে আবাদ
ছবি-সংগৃহীত

মা বোন কে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে আবাদ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: সিলেট শহরতলীর বিআইডিসি এলাকার মীর মহল্লার পারিবারিক বিরোধের জেরে সৎ মা, বোন ও ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করে আবাদ। নিহতরা হলেন-বিআইডিসি এলাকার মীর মহল্লার মৃত আবজাল হোসেনের স্ত্রী রুবিয়া বেগম (৩০) ও তার মেয়ে মাহা (৯), তাহসান (৭)।

এদিকে, সৎমা ও বোনকে কুপিয়ে হত্যার পর ঘাতক যুবক আবাদ হোসেন দুজনের লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে হত্যাকাণ্ডের পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় আবাদকে ছুরিসহ আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি হত্যার কথা স্বীকার করেছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এর আগে রাত ১২টার দিকে মহানগরের শাহপরান থানাধীন বিআইডিসি এলাকার মীর মহল্লায় সৎমা রুবিয়া বেগম (৩০) এবং তার মেয়ে মাহাকে (৯) ছুরি দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করেন ওই যুবক।

তার ছুরির আঘাতে গুরুতর আহত হন সৎভাই শিশু তাহসানও। তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ভোররাত ২টার দিকে শিশু তাহসানের মৃত্যু হয়।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) একটি দল লাশগুলো পর্যবেক্ষণ করতে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে যায়।

শাহপরান থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, ছুরি দিয়ে সৎমা, বোন ও ভাইকে কোপাতে থাকলে ঘটনাস্থলেই রুবিয়া ও মেয়ে নিহত হন।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ঘাতক আবাদকে ছুরিসহ আটক করা হয়।

ওসি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আবাদ জানিয়েছেন, তার নিজের মা বিয়ানীবাজারে থাকে। তার বাবা সৎমাকে নিয়ে শাহপরান এলাকায় থাকে। কয়েক মাস আগে দোকান দেখাশোনার জন্য তার বাবা তাকে এখানে আনে। কিন্তু বিষয়টি তার সৎমা পছন্দ করেনি। কয়েক দিন ধরে সৎমায়ের আচরণে ক্ষিপ্ত হয়েই তিনি তাদের ওপর হামলা চালান।

পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, শুধু হত্যা করেই ক্ষ্যান্ত হননি আবাদ, লাশগুলো পুড়িয়ে ফেলার চেষ্টাও করেন তিনি।

ওসি আরও বলেন, লাশগুলো উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১/ এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ