1. [email protected] : Developer :
  2. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
মানুষের ‘ভালোবাসায়’ বাজিমাত সিলেটের মাহি উদ্দিন সেলিমের
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্বনাথের লামাকাজী ইউনিয়নের পরিদর্শনে এমপি মোকাব্বির শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে টিউশন ফি ছাড় দেয়ার সিদ্ধান্ত কসাইকে সঙ্গে নিয়ে মায়ের লাশ পাঁচ টুকরা করে ছেলে: পুলিশ কুকুরের সঙ্গে ‘ফেরেশতার’ তুলনা করলেন অভিনেত্রী তুষ্টি বানিয়াচংয়ে দূর্গাপূজার পূজামন্ডপ পরিদর্শন করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাসেম চৌধুরী বাহুবলে সাবেক সেনা সদস্যের ফিশারীতে গাছ কর্তন ভারী বৃষ্টি হতে পারে আরো দুই দিন আবহাওয়া অধিদপ্তর বাহুবলে চা শ্রমিকদের জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন বায়োফিল টয়লেট সরকারের সাফল্য বহন করছে সাতক্ষীরার ফোর মার্ডার : ৪ জনকে একাই খুন করে নিহতের ভাই রাহানুর প্রত্যেক গাড়ির চালককে ডোপ টেস্ট করানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

মানুষের ‘ভালোবাসায়’ বাজিমাত সিলেটের মাহি উদ্দিন সেলিমের

  • আপডেটের সময় : অক্টোবর, ৮, ২০২০, ১:২৫ pm
মাহি উদ্দিন সেলিম
মাহি উদ্দিন সেলিম/ফাইল ছবি
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপ্রেস প্রতিবেদক :: সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব, সমাজসেবী মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম অসুস্থ ছিলেন সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে। শারীরিক অসুস্থতা বেড়ে যাওয়ায় ১৮ সেপ্টেম্বর ভর্তি হন হাসপাতালে। সিলেট নগরের একটি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

তার আগে ও পরে আরো বেশ কয়েকদিন চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে বাসায় চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। এই পুরো সময়টায় চিকিৎসকদের পরামর্শে নিজের মুঠোফোন বন্ধ রাখেন। থাকেন বিশ্রামে। তার কিছু দিন পরেই ছিলো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাচন। ৩ অক্টোবর নির্বাচন, তার আগে সদস্য প্রার্থী এই ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে। তাঁর শুভাকাঙ্খীরা ছিলেন চরম দুশ্চিন্তায়। নির্বাচনী বৈতরণি পার হতে পারবেন কি তিনি? এমন শঙ্কা ছিলো তাদের মনে।

অসুস্থ ছিলেন, নির্বাচনের টিক আগ মুহুর্তে মাত্র তিনদিন করেছেন নির্বাচনী প্রচারণা। আর তাতেই বাজিমাত করেছেন সিলেট জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি মাহি উদ্দিন সেলিম। অনেক বাঘা বাঘা প্রার্থীকে পরাজিত করে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো বাফুফের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

সিলেট তথা দেশের ফুটবলাঙ্গণে অনেক অবদান সিলেটের এই ক্রীড়া সংগঠকের। ক্রীড়া উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন মন উজাড় করে। স্পন্সর যখন মিলে না, নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মাহা থেকেই স্পন্সর করেন বাফুফে, ডিএফএ’র টুর্ণামেন্টগুলোতে। সিলেটের ক্রিকেটাঙ্গণ ও ফুটবলাঙ্গণেও জড়িয়ে আছে তাঁর এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। ক্রীড়াঙ্গণকে দুই হাত ভরে দিচ্ছেন তিনি। দেশের প্রায় প্রতিটি জায়গায় বিভিন্ন টুর্ণামেন্ট, আয়োজনে এগিয়ে আসেন মাহি উদ্দিন সেলিম। গুণেধরা এই সমাজে ‘মানবতা’র ফেরিওয়ালা হয়েও কাজ করছেন তিনি। নিজ উদ্যোগে মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিয়ে আসছেন দীর্ঘ দিন থেকে। অসহায়, গরীব কেউ গেলে খালি হাতে ফিরে আসেন না। নিজের এসব কাজকে কখনোই সামনে আনতে চান না তিনি। নিরবে, নিভূতে কাজ করে যান সমাজের জন্য, ক্রীড়াঙ্গণের জন্য। করোনার দুর্যোগের সময়েও তিনি পাশে দাঁড়িয়েছেন ক্রীড়াঙ্গনের, খেলোয়াড়, কোচ-কর্মকর্তাদের। এসবের ভালোবাসারই যেনো বর্হিঃপ্রকাশ ঘটলো বাফুফে নির্বাচনে।

নির্বাচনের আগে তিনি অসুস্থ ছিলেন, ভোটারদের কাছে যেতে পারেননি, নিজের জন্য ভোটও চাইতে পারেননি। নির্বাচনের তিন আগে ঢাকায় গিয়ে শেষ মুহুর্তে কিছুটা প্রচারণা চালিয়ে ছিলেন। কিন্তুু ভোটাররা গোপন ব্যালট পেপারে নিরব ভালোবাসা জানিয়েছেন মাহি উদ্দিন সেলিমের প্রতি। নির্বাচনে ৮৪ ভোট পেয়েছেন তিনি। সদস্যপদে তার উপরে আছেন মাত্র চারজন। সর্বোচ্চ ৮৭ ভোট পেয়েছেন জাকির হোসেন, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৬ ভোট পেয়েছেন আব্দুল ওয়াদুদ, তৃতীয় সর্বোচ্চ ৮৫ ভোট পেয়েছেন বিজন বড়ুয়া। চতুর্থ সর্বোচ্চ ৮৫ ভোট পেয়েছেন শেখ আরিফ হোসেন মুন, যৌথ ভাবে পঞ্চম সর্বোচ্চ ৮৪ করে ভোট পেয়েছেন মাহি উদ্দিন সেলিম ও মোঃ নুরুল ইসলাম নুরু।

অথচ এই নির্বাচনে সদস্য পদে মাহি উদ্দিন সেলিমের প্যানেলের অনেক বাঘা বাঘা প্রার্থীও ফেল করেছেন। জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার থেকে শুরু করে অনেকেই ফেলের খাতায় নাম লিখিয়েছেন। ক্রীড়াঙ্গনের প্রিয়জন, সিলেটের এই সংগঠক, নির্বাচনী প্রচারণায় তেমনটা না থাকলেও ব্যালটের লড়াইয়ের ‘বাজিমাত’ করেছেন। তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ভোটার ও শুভাকাঙ্খীদের প্রতি।

জানতে চাইলে মাহি উদ্দিন সেলিম বলেন, ‘আমি অসুস্থ ছিলাম। হাসপাতালে ভর্তি ছিলাম বেশ কিছু দিন। কারো সঙ্গেই যোগাযোগ করতে পারিনি। নির্বাচনী প্রচারণা করতে পারিনি। নির্বাচনের মাত্র তিন দিন আগে ঢাকায় যাই। সবাই যে ভাবে ভালোবাসার বর্হিঃপ্রকাশ করেছেন আমি মুগ্ধ হয়েছি। যতদিন বেঁচে থাকবো ফুটবলের জন্য, মানুষের জন্য কাজ করে যেতে চাই। সবার এই ভালোবাসার প্রতিদান কাজের মাধ্যমেই দিতে চাই।’

বাফুফে নির্বাচনে সদস্য পদের ফলাফল; কার্যনির্বাহি সদস্য জাকির হোসেন চৌধুরি-৮৭ ভোট (নির্বাচিত), আব্দুল ওয়াদুদ পিন্টু- ৮৬ ভোট (নির্বাচিত), বিজন বড়ুয়া- ৮৫ ভোট (নির্বাচিত), শেখ আরিফ হোসেন মুন- ৮৫ ভোট (নির্বাচিত), মো. নুরুল ইসলাম নুরু- ৮৪ ভোট (নির্বাচিত), মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম- ৮৪ ভোট (নির্বাচিত), টিপু সুলতান- ৮১ ভোট (নির্বাচিত), সত্যজিৎ দাশ রুপু- ৭৬ ভোট (নির্বাচিত), ইলিয়াস হোসেন- ৭৫ ভোট (নির্বাচিত), ইমতিয়াজ হামিদ- ৭৪ ভোট (নির্বাচিত), মাহফুজা আক্তার কিরণ- ৭০ ভোট (নির্বাচিত), হারুনুর রশীদ- ৭০ ভোট (নির্বাচিত), আমের খান- ৬৯ ভোট (নির্বাচিত), সাইফুল ইসলাম- ৬৯ ভোট (নির্বাচিত), মহিদুর রহমান- ৬৮ ভোট (নির্বাচিত), আসাদুজ্জাম মিঠু- ৬৭ ভোট, ইকবাল হোসেন- ৬৭ ভোট, ইমতিয়াজ সুলতান জনি- ৬৬ ভোট, হাসানুজ্জাম খান- ৬৫ ভোট, কামরুল হাসান হিলটন- ৫৯ ভোট, শাকিল মাহমুদ- ৫২ ভোট, অমিত খান শুভ্র- ৫২ ভোট, ফজরুল রহমান বাবুল- ৫১ ভোট, আমিনুল হক মামুন- ৫০ ভোট, রিয়াজুল করিম – ৪৯ ভোট, মিজানুর রহমান- ৪৪ ভোট, সাব্বির হোসেন- ৪৪ ভোট, মোস্তাক আলি, মুকুল- ৪৩ ভোট, মনজুরুল আহসান- ৪০ ভোট, শওকত আলি খান-৩৯ ভোট, সাইফুর রহমান মনি- ২৭ ভোট, সাখাওয়াত হোসেন- ২২ ভোট, মোহাম্মদ রফিক- ৯ ভোট ও রায়হান কবির- ৫ ভোট।

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /০৮ অক্টোবর ২০২০/এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ