1. [email protected] : Developer :
  2. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস করালেন শিক্ষার্থীরা
শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ক্ষমতা দখলের গভীর ষড়যন্ত্রের তথ্য উদ্‌ঘাটন করেছে গোয়েন্দা সংস্থা: ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রী শনিবার জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন জাতির পিতার অসম্পন্ন কাজ আমরা সম্পন্ন করবো: প্রধানমন্ত্রী বগুড়া শেরপুরে তিন সন্তান নিয়ে লিটনের মানবেতর জীবন যাপন! গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি কবি রাজিয়া খানম জৈন্তাপুরে মসজিদের পাঠদান শিক্ষক কর্তৃক ফ্লাক্সের গরম চা ঢেলে শিশু ছাত্র নির্যতন বাহুবলে প্রয়াত আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহঃ) এর স্মরণ সভা ওসমানীনগরে ভাবির দায়ের আঘাতে আহত দেবর বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বিশ্বনাথ উপজেলা শাখার কমিটি অনুমোদন দিরাইয়ে চাচাতো ভাইদের হামলায় ইতালি প্রবাসী আহত

শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস করালেন শিক্ষার্থীরা

  • আপডেটের সময় : সেপ্টেম্বর, ১৪, ২০২০, ৩:২১ pm
শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস করালেন শিক্ষার্থীরা
ছবি-সংগৃহীত
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: বরিশালে এক শিক্ষককে মারধর করে কান ধরে ওঠবস করানোর ঘটনা ঘটেছে।

রোববার ফেসবুকে ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। তবে ঘটনাটি এক মাস আগের বলে জানা গেছে।

লাঞ্ছিত হওয়া শিক্ষক মিজানুর রহমান সজল বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়নের আয়লা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত নগরীর রুপাতলীর জম জম ইনস্টিটিউটে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি করোনাকালে তিনি পুনরায় জম জম ইনস্টিটিউটে অনলাইনে মেডিক্যাল ডিপ্লোমার কয়েকটি ক্লাস নেন।

মিজানুর রহমান বলেন, ‘জমজম ইনস্টিটিউটের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে আমার বিরোধ দেখা দেয়। এর মধ্যে মোঃ ইমন ও তার স্ত্রী মনিরা ছিল। তারা ক্লাস ফাঁকি ও লেখাপড়ায় অমনোযোগী ছিল। তাদের লেখাপড়ায় মনোযোগ দিতে বলা হলেও কর্ণপাত না করে উল্টো পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাইয়ে দিতে নানা সময়ে তাদের বহিরাগত বন্ধুদের দিয়ে চাপ দিয়ে আসছিল। গত ২৬ আগস্ট হাতেম আলী কলেজ সংলগ্ন এলাকায় ইমন ও তার ৬-৭ বন্ধু পথরোধ করে আমার মুঠোফোন ও মোটরসাকেলের চাবি নিয়ে যায়। সেখান থেকে আমাকে তারা জোর করে অক্সফোর্ড মিশন রোড এলাকায় নিয়ে যায়। পরে আমাকে গোরস্থান রোডে নিয়ে মারধর করে তারা। এক পর্যায়ে ইমন আমাকে কান ধরে ওঠবস করায়। এরপর তারা আমাকে কিছু কথা বলতে বাধ্য করে এবং সেগুলো মুঠোফোনে ধারণ করে।’

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, ছাত্রীকে বেশি নম্বর পাইয়ে দেয়ার প্রলোভনে অনৈতিক প্রস্তাব না দেয়ার শপথ করে মিজানুর রহমানকে কান ধরে ওঠবস করানো হচ্ছে। ভিডিওতে কয়েকজনের কণ্ঠস্বর শোনা গেলেও কাউকে দেখা যায়নি। বোরকা পরিহিত একজনকে দেখা গেলেও তার মুখমণ্ডল দেখা যায়নি।

জমজম ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদুল হক বলেন, ‘আমাদের সাবেক এ শিক্ষককে নগরীর কোনো একটি জায়গায় তুলে নিয়ে কয়েকজন ছাত্র নির্যাতন করেছে এবং কান ধরে উঠবস করিয়েছে। ঘটনাটি এক মাস পূর্বে ঘটলেও ৪-৫ দিন আগে ভিডিওটি আমি দেখেছি। শিক্ষক ও ছাত্রদের দ্বন্দ্বের সূত্রপাত ধরেই এ ঘটনা ঘটেছে।’সূত্র : ইউএনবি

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০/এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ