1. [email protected] : Developer :
  2. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
ইউরোশিয়ান প্রিমিয়ামে প্রথম হলো ঢাকার মসজিদ
শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জৈন্তাপুরে মসজিদের পাঠদান শিক্ষক কর্তৃক ফ্লাক্সের গরম চা ঢেলে শিশু ছাত্র নির্যতন বাহুবলে প্রয়াত আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহঃ) এর স্মরণ সভা ওসমানীনগরে ভাবির দায়ের আঘাতে আহত দেবর বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বিশ্বনাথ উপজেলা শাখার কমিটি অনুমোদন দিরাইয়ে চাচাতো ভাইদের হামলায় ইতালি প্রবাসী আহত সৌদিতে বিরোধী দলের আত্মপ্রকাশ আজ ২৪ সেপ্টেম্বর বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মৃদুলের জন্মদিন। দৈনিক সমাচার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক রাসেল চৌধুরীরর রোগ মুক্তির জন্য বানিয়াচংয়ে দোয়া মাহফিল ইতালির ভেনিস সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নির্বাচিত মাধবপুরে বিজিবি’র অভিযানে ১০৪ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার

ইউরোশিয়ান প্রিমিয়ামে প্রথম হলো ঢাকার মসজিদ

  • আপডেটের সময় : সেপ্টেম্বর, ১৪, ২০২০, ৪:০৬ pm
ইউরোশিয়ান প্রিমিয়ামে প্রথম হলো ঢাকার মসজিদ
ছবি-সংগৃহীত
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: রাজধানী ঢাকার আজিমপুর কবরস্থানে অবস্থিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ জামে মসজিদ এবারের রাশিয়ান শিল্প ও ডিজাইনের আন্তর্জাতিক ফেস্টিভাল- ইউরোশিয়ান প্রিমিয়াম ২০২০- পুরস্কারের জন্য আর্কিটেকচার বিভাগে প্রথম হয়েছে।

গত ১০ সেপ্টেম্বর রাশিয়ার নগরবাদী ও ডিজাইনারদের শীর্ষ প্রতিষ্ঠান ইউরোশিয়া প্রাইজ কর্তৃপক্ষ এ পুরস্কার ঘোষণা করে। প্রতিষ্ঠানের ওয়েব পেজেও এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

মেয়র মোহাম্মদ হানিফ জামে মসজিদের বিশিষ্ট স্থপতি রফিক আজম পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তার নেতৃত্বেই এক দল স্থপতি মসজিদটির ডিজাইন করেন।

তিনি বলেন, এ বছর আমরা দুটি পুরস্কার পেয়েছি। একটি হলো- আজিমপুর কবরস্থানের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ জামে মসজিদ, যা পৌনে পাঁচ শ ডিজাইনের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে। এ ছাড়া আব্দুল আলিম খেলার মাঠও পুরস্কার জিতেছে।

উল্লেখ্য, অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফের নামে বর্তমান ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আজিমপুর পুরনো কবরস্থানে জাতীয় ঐতিহ্য ও মুসলিম স্থাপত্যকলার অংশ হিসেবে মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছে। ২০১৬ সালের ২৮ আগস্ট ২৩ কাঠা জমির ওপর ৩০ হাজার ২২ বর্গফুট আয়তনের মসজিদটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এর নির্মাণ কাজ শেষ হয় ২০১৮ সালের ২০ সেপ্টেম্বর।

শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কারুকার্যময় নয়নাভিরাম মসজিদটির উঁচু মিনারে রাখা মাইকের মাধ্যমে আজানের ধ্বনি যখন এর চার পাশে ছড়িয়ে পড়ে তখন ঈমানদারদের অন্তর ছুঁয়ে যায়। মসজিদে থাকা প্রশস্ত পার্কিংয়ে ৩০টির বেশি গাড়ি রাখা যায়। আলাদা অজু ও নামাজ পড়ার ব্যবস্থা রয়েছে নারী ও পুরুষের জন্য।

জানা যায়, মসজিদটিতে একসঙ্গে ১ হাজার ৫২০ জন মুসল্লি এবং ৭০ জন নারী পৃথক স্থানে নামাজ আদায় করতে পারেন। রমজান মাস ও ঈদে দুই হাজারের বেশি মানুষ এখানে নামাজ পড়তে সমবেত হন। ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিতের পাশপাশি এ মসজিদে রয়েছে লিফট ও উন্নতমানের টয়লেট সুবিধা। এ ছাড়া প্রতিবন্ধীদের জন্য হুইল চেয়ার। সূত্র- পার্সটুডে

 

 

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০/এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ