1. [email protected] : Developer :
  2. [email protected] : Sylhet Press : Sylhet Press
শ্রেষ্ঠ জীবের পৈশাচিক অভিলাস
শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জৈন্তাপুরে মসজিদের পাঠদান শিক্ষক কর্তৃক ফ্লাক্সের গরম চা ঢেলে শিশু ছাত্র নির্যতন বাহুবলে প্রয়াত আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহঃ) এর স্মরণ সভা ওসমানীনগরে ভাবির দায়ের আঘাতে আহত দেবর বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বিশ্বনাথ উপজেলা শাখার কমিটি অনুমোদন দিরাইয়ে চাচাতো ভাইদের হামলায় ইতালি প্রবাসী আহত সৌদিতে বিরোধী দলের আত্মপ্রকাশ আজ ২৪ সেপ্টেম্বর বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মৃদুলের জন্মদিন। দৈনিক সমাচার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক রাসেল চৌধুরীরর রোগ মুক্তির জন্য বানিয়াচংয়ে দোয়া মাহফিল ইতালির ভেনিস সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নির্বাচিত মাধবপুরে বিজিবি’র অভিযানে ১০৪ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার

শ্রেষ্ঠ জীবের পৈশাচিক অভিলাস

  • আপডেটের সময় : আগস্ট, ২৫, ২০২০, ৩:১৫ am
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রবিউল ইসলাম রবি :: বর্তমানে মানুষের মধ্যে পারিবারিক এবং সামাজিক দায়বদ্ধতা নেই বললেই চলে। কে কাকে অন্যায় ভাবে কেমনে ল্যাং মারবে কেমনে হেনস্তা করবে সে নেশায় মত্ত। ফলশ্রুতিতে মানুষের মধ্যে মনুষ্যত্ববোধসহ কোন মানবিক গুণাবলী আর প্রকাশ পায় না। অন্যর ক্ষতি করাই শ্রেয় মনে করছে এক শ্রেণীর ভদ্রবেশী মানুষ। তাদের কাছে মা মাসি বলতে কিছু নেই। তাদের মুখে মধু আর অন্তরে নীল বিষ।

মানুষ এখন স্বার্থপরতার চরম শিখরে পৌঁছে গেছে, সবাই এখন যে যার কাজ নিয়ে ব্যস্ত। কে কত বেশি অন্যায় পথে উপার্জন করে সফলতাকে ছিনিয়ে নিতে আসতে পারে সে প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত। মানুষ এখন অনেক বেশি জানে ও বোঝে। ফলশ্রুতিতে ত্যাগ করেছে পারিবারিক এবং সামাজিক সকল বন্ধন গুলো।

তবে এই আধুনিক সমাজের মানুষ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তৈরি করছে ভার্চুয়াল প্রযুক্তির সাথে। এই ভার্চুয়াল সম্পর্ক স্থাপন ক্ষেত্রে এবং রক্ষা করার ক্ষেত্রে আমরা সবাই মোটামুটি তৎপর। এ কারণে মানুষ যখন সামাজিক এবং পারিবারিক দায়িত্ব থেকে মুক্ত তখন সে যে কোন ধরনের খারাপ কাজের সঙ্গে অনায়াসে যুক্ত হতে পারে। খুন, ধর্ষণ, নারী নির্যাতন, যৌন হয়রানি, মাদক ও জুয়াসহ নানাবিধ কুকর্মই এখন আমাদের পেশা ও নেশায় পরিণত হয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে আমাদের সমাজে দুর্নীতি ও সন্ত্রাসসহ নানা ধরনের অপরাধ বেড়েছে।

আমাদের সমাজের এক শ্রেণীর মানুষ যারা কোন কর্ম না করতে পেরে হতাশ হয়ে নেশাগ্রস্থ হয়ে সমাজটাকে ধ্বংস করছে। এদের আবার এক শ্রেণীর মানবতার ফেরিওয়ালারা নিজের হীনচরিত্র সাধনের জন্য আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে। যার কারনে আমাদের সমাজ ব্যবস্থা পুরোটাই হুমকির মুখে পড়ছে। এভাবে মানুষ আস্তে আস্তে নিজের প্রয়োজনে তাগিদে পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে।

এর জন্য আমাদের চরম মূল দিতে হবে ভবিষ্যতে বর্তমানেও কিছু দিতে হচ্ছে। আমরা কেউ বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবোনা নৈতিকতার জায়গায় ঠিক আছি। নিজেদের সুবিধামতো অন্যায়কে ন্যায় বানিয়ে নিয়ে জীবন পরিচালনা করছি।

ফিরতেই হবে নৈতিকতার সঠিক জায়গায়, নইলে অমানবিকতা সমাজকে গ্রাস করবে। যেখান থেকে আর সহজে মুক্তি মিলবেনা।

রবিউল ইসলাম রবি
কলামিস্ট ও শিক্ষক

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম /২৫ আগস্ট ২০২০/এফ কে


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর


© All rights reserved © 2020 SylhetPress
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ