নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়া সেই মায়ের মৃতদেহ ভেসে উঠল – SylhetPressbd

নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়া সেই মায়ের মৃতদেহ ভেসে উঠল

প্রকাশিত: ২:২৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০

নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়া সেই মায়ের মৃতদেহ ভেসে উঠল

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: দুই সন্তানকে রেখে সেতু থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়া গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার সেই গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

উপজেলার পাটগাতীতে মধুমতি নদীর ওপর শেখ লুৎফর রহমান সেতু থেকে ঝাঁপ দেওয়ার চারদিন পর শুক্রবার সকালে আফরোজা খানম (২৩) নামের ওই নারীর মৃতদেহ নদীতে ভেসে ওঠে।

দমকল বাহিনীর কর্মীরা মৃতদেহ উদ্ধার করে পাড়ে নিয়ে আসেন। সকাল ১০টার দিকে পুলিশ উপজেলার গিমাডাঙ্গা ইটভাটা এলাকার মধুমতি নদীর পাড় থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

টুঙ্গিপাড়া থানার ওসি এ.এফ.এম নাসিম সমকালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, দমকল বাহিনীর কর্মীরা মৃতদেহ নদীপাড়ে নিয়ে আসেন। আমরা ওই গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। স্বজনরা ময়না তদন্ত ছাড়াই মৃতদেহ তাদের কাছে হস্তান্তরের আবেদন করেন। আইনি প্রক্রিয়া শেষে অফেরোজার বাবা ও শাশুড়ির কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়।

ওসি বলেন, কোনও অভিযোগ না থাকায় মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছিল।

তিনি জানান, গত মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে ইজিবাইকে করে বোরকা পরা অবস্থায় আফরোজা খানম তার দুই সন্তান ফাহমিদা ইসলাম (৬) ও আব্দুস সালামকে (৪) নিয়ে শেখ লুৎফর রহমান সেতুর মাঝখানে আসেন। কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে সন্তানদের কাছে তার মোবাইল ও ব্যাগ রেখে মধুমতি নদীতে ঝাঁপ দেন তিনি।

ওসি জানান, এক পর্যায়ে আফরোজার সন্তানদের চিৎকারে লোকজন জড়ো হয়। তাৎক্ষণিকভাবে টুঙ্গিপাড়া দমকল বাহিনীকে খবর দেওয়া হয়। এরপর দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে খোঁজাখুঁজি অব্যাহত রাখে। শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থলের আধা কিলোমিটার দূরে ওই নারীর মৃতদেহ ভেসে ওঠে।

মায়ের মৃতদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে মেয়ে ফাহমিদা ইসলাম ও ছেলে আব্দুস সালাম শুধুই কান্না কাটি করছে বলে জানিয়েছেন আফরোজার ভাবী ফাতেমা বেগম।

কান্নাকাটি করতে করতে আফরোজার মেয়ে ফাহমিদা বলে, মায়ের জন্য তাদের অনেক কষ্ট হচ্ছে।

আফরোজার বড় বোন মাকসুদা বেগম বলেন, ময়নাতদন্ত ছাড়াই বোনের মৃতদেহ থানা থেকে বাঁশবাড়িয়া গ্রামে নিয়ে এসেছি। তার স্বামী ও বাবার বাড়ির পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাঁশবাড়িয়া গ্রামে যানাজা শেষে আফরোজার মৃতেদহ দাফনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

সিলেটপ্রেসবিডিডটকম/১8 ফেব্রুয়ারি ২০২০/এফ কে আর

  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

Send this to a friend